শিক্ষকতা থেকে অবসর নিলেন চবির প্রথম নারী উপাচার্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিয়ম অনুযয়ী  চাকরির বয়স শেষ হওয়ায় বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) সকালে কর্মস্থল বাংলা বিভাগ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অবসর নিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার। তবে, শিক্ষকতা থেকে অবসরে গেলেও উপাচার্য হিসেবে নিয়মিত দায়িত্ব পালন করবেন তিনি। গত ৯ মার্চ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক অফিস আদেশে এ বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। অফিস আদেশে বলা হয়, ‘মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলরের অনুমােদনক্রমে চবি উপাচার্য ড. শিরীণ আখতারকে নিয়মিত চাকরির বয়সপূর্তিতে অবসর গ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা সম্পাদনের জন্য আগামী ২৯ এপ্রিল পূর্বাহ্নে তার মূল কর্মস্থল বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে প্রত্যাবর্তনপূর্বক একই দিন অপরাহ্নে উপাচার্য পদে যোগদানের অনুমতি প্রদান করা হলো। এছাড়া উপাচার্য ড. শিরীণ আখতারের অনুপস্থিতিতে কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন ও বাংলা বিভাগের জ্যেষ্ঠ অধ্যাপক ড. মােহাম্মদ মহীবুল আজিজকে নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব পালনের অনুমতি প্রদান করা হলো।’ তবে এই আদেশে তিনি কতদিন উপাচার্যের দায়িত্বে থাকবেন তা উল্লেখ ছিল না।
বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এসএম মনিরুল হাসান বলেন, ‘উপাচার্যের চাকরির বয়স শেষ হওয়ায় ২৯ এপ্রিল তিনি অবসর গ্রহণ করেছেন এবং পুনরায় উপাচার্যের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন।’
প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ৩ নভেম্বর চবির উপাচার্যের দ্বায়িত্ব পান ড. শিরীণ আখতার। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দীনের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় ১৩ জুন থেকে উপাচার্যের রুটিন দ্বায়িত্ব পালন করে আসছিলেন তিনি।
এর আগে ২০১৬ সালের ২৮ মার্চ রাষ্ট্রপতি ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর ১৯৭৩-এর ১৪(১) ধারা অনুযায়ী অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতারকে উপ-উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ দেন। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে প্রথম কোনো নারী উপ-উপাচার্য এবং পরে উপাচার্য হন।

আপনার ভালো লাগতে পারে এমন আরো কিছু খবর