কুয়াশাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে চট্টগ্রাম, বাড়ছে শীতের তিব্রতা

বশির আলমামুন

গত কয়েক দিন ধরে কুয়াশার চাদরে ঢেকে গেছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে । টানা তিন দিন ধরে শহরে ঘন কুয়াশার এ দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। সকাল ১০টা নাগাদ দেখা মিললেও সূর্যের সেই তেজ পাওয়া যাচ্ছে না। সন্ধ্যা হতেই শহরতলিগুলো ঢাকা পড়ছে কুয়াশায়। রাত গভীর হলে নগরেও বাড়ে কুয়াশার দাপট। কুয়াশার কারণে স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি শীত অনুভূত হচ্ছে। তাই প্রয়োজন না হলে সকাল সকাল ঘরের বাইরে বের হতেও হিসাব কসছেন নগরবাসী। রাত নামতেই বাড়ি ফেরার তাড়া দেখা যাচ্ছে কর্মজীবীদের মাঝে। ঘন কুয়াশা আর শীতের কারণে খেটে খাওয়া ও ছিন্নমূল মানুষেরা বিপাকে পড়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম নগরের বিভিন্ন মোড়ে অনেককে আগুন জ্বেলে শীত তাড়াবার চেষ্টা করতে দেখা গেছে। গত বুধবারও সন্ধ্যার পরপর চট্টগ্রামে কুয়াশা জেকে বসেছিল। তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় কুয়াশা বাড়ছে।
পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ ড. শহীদুল ইসলাম জানান, বাতাস উষ্ণ এবং আদ্রতা বেশি থাকার কারণে চট্টগ্রামে কয়েকদিন ধরে কুয়াশার আধিপত্য লক্ষ্য করা যাচ্ছে। একটি মৌসুমী লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। কুয়াশার পেছনে এর কারণও রয়েছে। তবে ডিসেম্বর মাসে এমন কুয়াশা থাকাটা স্বাভাবিক।
তিনি আরও বলেন, উচ্চতার সাথে তাপমাত্রার যে সম্পর্ক সেই হিসেবে ভূমির কাছাকাছি বাতাসে উষ্ণতা বেড়ে গেলে সেটি কুয়াশা বাড়াতে সাহায্য করে। গত কয়েক দিন ধরে আমরা চট্টগ্রামে এমনটা খেয়াল করছি। মূলত রাতে তাপমাত্রা কমে যাওয়ার আগেই কুয়াশা তৈরি হয়ে যাচ্ছে। আর বাতাস কম থাকার কারণে কুয়াশা সরে যেতে পারছে না। এ অবস্থা বিরাজ থাকায় দুর্ভোগে ছিন্নমূল মানুষেরা।
ড. শহীদুল বলেন, অ্যাডভেকশন ফগ বা আদ্রতা বেশি থাকায় তৈরি কুয়াশা ভারত থেকে বাতাসের তোড়ে বাংলাদেশে চলে আসায়, এখানে কয়েক বছর ধরে কুয়াশা দাপট দেখা যাচ্ছে।
তিনি জানান, চট্টগ্রামে (বৃহস্পতিবার) সকাল ৬টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর ১ ঘণ্টা পর তাপমাত্রা ১৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকলেও, ৮টায় লাফ দিয়ে ২১ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠে আসে। এর আগে গতকাল বুধবার চট্টগ্রামের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ছিল ১৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কিন্তু মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর) চট্টগ্রামের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৮ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ছিল ১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।রাত বাড়লে নগরেও বাড়ে কুয়াশার দাপট।
ড. শহীদুল ইসলাম বলেন, তাপমাত্রার এমন উত্থান-পতন সারফেসে কুয়াশা সৃষ্টি করতে ভূমিকা রাখে।
তবে পরিবেশবিদদের দাবি, ঢাকা ও চট্টগ্রামের মত মেগা সিটিগুলোতে দূষণের কারণে এখানে ধুলা ও ধোঁয়ার আধিক্য থাকে। যে কারণে কুয়াশাও ঘন হয়

আপনার ভালো লাগতে পারে এমন আরো কিছু খবর