তিন দফা দাবি নিয়ে সিএন্ডএফ নেতাদের কর্মবিরতি

 শ্লোগান ডেস্ক |  মঙ্গলবার, জুন ৭, ২০২২ |  ১১:২৫ পূর্বাহ্ণ
       

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড মৌলিক অধিকার পরিপন্থী কাস্টমস এজেন্ট লাইসেন্সিং বিধিমালা-২০২০ এবং পণ্য চালান শুল্কায়নে এইচএস কোড (পণ্যের পরিচিতি নম্বর) এবং সিপিসি নির্ধারণে প্রণীত আইন বাতিল চেয়ে আবারো কর্মবিরতি পালন করছে সিএন্ডএফ এজেন্টসের সদস্য ও নেতাকর্মীরা। ২০ দিনের ব্যবধানে তারা এই কর্মবিরতি পালন করছেন।

মঙ্গলবার (৭ জুন) সকাল থেকে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ কাস্টমস সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের আহ্বানে কাস্টমস হাউস প্রাঙ্গণে কর্মবিরতি পালন করছে তারা।

এবারের দাবি, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড মৌলিক অধিকার পরিপন্থী কাস্টমস এজেন্ট লাইসেন্সিং বিধিমালা-২০২০ এবং পণ্য চালান শুল্কায়নে এইচএস কোড (পণ্যের পরিচিতি নম্বর) এবং সিপিসি নির্ধারণে প্রণীত আইন বাতিল করা।

চট্টগ্রাম কাস্টমস এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহমুদ ইমাম বিলু গণমাধ্যমকে জানান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড মৌলিক অধিকার পরিপন্থী কাস্টমস এজেন্ট লাইসেন্সিং বিধিমালা-২০২০ এবং পণ্য চালান শুল্কায়নে এইচএস কোড (পণ্যের পরিচিতি নম্বর) এবং সিপিসি নির্ধারণে প্রণীত আইন বাতিল করতে হবে। অন্যথায় আজ আমরা বিল এন্ট্রি দাখিল, শুল্কায়ন, ব্যাংক ড্রাফট, পে অর্ডার জমাসহ সব কাজ থেকে বিরত থাকবো। ন্যায্য অধিকার আদায়ের জন্য আমাদের এ সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে লাইসেন্স নবায়নের সময়সীমা বাড়ানোর দাবিতে গত ১৮ মে কর্মবিরতি পালন করেছিল সিএন্ডএফ নেতারা।

জেবি