কান্নায় ভারি চমেক, ছবি নিয়ে নিখোঁজদের সন্ধানে স্বজনদের আহাজারি

 নিজস্ব প্রতিবেদক |  রবিবার, জুন ৫, ২০২২ |  ৬:৩৩ অপরাহ্ণ
       

সীতাকুণ্ডের বেসরকারি বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণে নিহত এবং আহতদের উদ্ধার করে আনা হয়েছে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল হাসপাতালে। ঘটনাস্থল থেকে নিখোঁজদের খুঁজতে চট্টগ্রামের বিভিন্ন হাসপাতালে ভিড় করছেন স্বজনরা।

এব্যাপারে পিবিআই পুলিশ পরিদর্শক মো. মনির হোসেন জানান, প্রযুক্তির সহায়তায় লাশগুলোর পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টা
চলছে। আঙুলের ছাপের মাধ্যমে পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা করছি। ইতোমধ্যে ১৭ জনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। যাদের আঙুলের ছাপ নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না তাদের ডিএনএ পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে শনাক্ত করা হবে।

স্বজনরা তাদের নিখোঁজ হয়ে যাওয়া সদস্যদের সন্ধানে অনেক স্বজন রাত থেকে খোঁজাখুঁজি করছেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল হাসপাতাল। মর্গে গিয়ে নিহতদের চিহ্নিত করার চেষ্টা করছেন। ছবি নিয়ে নিখোঁজদের সন্ধানে হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ঘুরছে তারা।
শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টায় বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে পুরো ডিপো এলাকা। পরে ভয়াবহ আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ডিপোতে আমদানি-রফতানির বিভিন্ন মালামালবাহী কনটেইনার ছিল। ডিপোর কনটেইনারে রাসায়নিক ছিল, বিকট শব্দে সেগুলোতেও বিস্ফোরণ ঘটে। দ্রুত চারদিকে আগুন ছড়িয়ে পড়ায় হতাহত হয়েছে বেশি। আহতদের উদ্ধার করে চমেক হাসপাতাল ও বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়। বিস্ফোরণে লাগা আগুন প্রায় ২০ ঘণ্টায়ও পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৯ জনে। আগুন নিয়ন্ত্রণের জন্য কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি দল।

আজ রোববার বিকেল ৫টার দিকে ঘটনাস্থলে দেখা যায়, আগুন লাগা কনটেইনারগুলোয় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ওপর থেকে যন্ত্রের সাহায্যে পানি ছিটাচ্ছেন। কিছু কিছু জায়গায় জ্বলছে আগুন।