ব্যবসা ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে দুর্যোগ ঝুঁকি বুঝে বিনিয়োগ করতে হবে-চেম্বার সভাপতি

 নিজস্ব প্রতিবেদক |  বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৭, ২০২১ |  ১০:০৩ অপরাহ্ণ
       

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় এবং ইউএনডিপি’র যৌথ উদ্যোগে “ইন্ডাস্ট্রি সেক্টর রিস্ক প্রোফাইল-দ্যা কেইস অব কেইপিজেড এন্ড কালুরঘাট ইন্ডাস্ট্রিয়াল এরিয়া ইন চট্টগ্রাম” শীর্ষক গবেষণা বিষয়ক সেমিনার ০৭ অক্টোবর সকালে চট্টগ্রামস্থ একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও চীফ অফ প্রোগ্রামিং ডিভিশন খন্দকার আহসান হোসেন’র সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্্ির’র সভাপতি মাহবুবুল আলম। ড. নুরুন নাহার, জয়েন্ট চীফ, প্রোগ্রামিং ডিভিশন ও প্রজেক্ট ডিরেক্টর, ন্যাশনাল রেজিলেন্স প্রোগ্রাম (যুগ্ম সচিব), মিনিস্ট্রি অফ প্ল্যানিং এবং ইউএনডিপি’র প্রোগ্রাম স্পেশালিস্ট আরিফ আবদুল্লাহ খান এতে বক্তব্য রাখেন। এ সময় চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ মোহাম্মদ তানভীর, পরিচালক অঞ্জন শেখর দাশ, প্রাক্তন পরিচালক মোঃ এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী ও মাহফুজুল হক শাহ অংশগ্রহণ করেন। গবেষণা কার্যক্রমটি পরিচালনা করেন ইন্সটিটিউট অব ওয়াটার মডেলিং (আইডব্লিউএম)।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চিটাগাং চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন-একটি জ্ঞানভিত্তিক উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হতে হলে ব্যবসায়ীদের তথ্যভিত্তিক তথা ব্যবসা ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে দূর্যোগ ঝুঁকি বুঝে বিনিয়োগ করতে হবে। এ গবেষণার মাধ্যমে চট্টগ্রাম অঞ্চলে শিল্প খাতে দূর্যোগ ও জলবায়ুর পরিবর্তনগত প্রভাবে সৃষ্ট ঝুঁকি চিহ্নিত করা হয়েছে যা বিনিয়োগকারীদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
সরকার ও দাতাসংস্থার নিয়মিতভাবে এ জাতীয় গবেষণা পরিচালনার মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের অবহিত করা প্রয়োজন বলে তিনি মন্তব্য করেন এবং বঙ্গবন্ধু শিল্প নগর অঞ্চলে এ জাতীয় গবেষণা পরিচালনার উপর গুরুত্বারোপ করেন। বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বাজারে বেসরকারি খাতে কস্ট অব ডুয়িং বিজনেস কমিয়ে আনা অন্যতম লক্ষ্য উল্লেখ করে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনার জন্য বেসরকারি খাতের উপর কোন নীতি হঠাৎ করে প্রয়োগ করা ঠিক হবে না বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। তাই দূর্যোগ সহনীয় বিনিয়োগ উৎসাহী করতে সহজ শর্তে দীর্ঘমেয়াদী ঋণ সুবিধা প্রদানের পাশাপাশি দূর্যোগপূর্ণ এলাকায় বিদ্যমান শিল্পকে অন্যত্র স্থানান্তর অথবা দূর্যোগ সহনীয় করে গড়ে তোলার জন্য এককালীন পূর্ণ অথবা আংশিক অনুদানের ব্যবস্থা করা এবং দূর্যোগ সহনীয় বিনিয়োগের প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি ও সরঞ্জামাদি আমদানি করতে কর অবকাশ সুবিধা দেয়ার কথাও বিবেচনা করা দরকার। এই গবেষণা থেকে একটি সময়োপযোগী পরিকল্পনা এবং দ্রুত বাস্তবায়ন অত্যন্ত জরুরী বিধায় চেম্বার সভাপতি এ লক্ষ্যে দ্রুত পদক্ষেপের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।