আবারও ১৫৮ বাংলাদেশি ফেরত পাঠাচ্ছে মাল্টা, আতঙ্কে প্রবাসীরা

  |  মঙ্গলবার, জুন ২২, ২০২১ |  ১:০২ অপরাহ্ণ
       

ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত মাল্টা দ্বীপ থেকে আবারও ১৫৮ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর খবর পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মাল্টা প্রবাসী কয়েকজন বাংলাদেশি।

ইতোমধ্যে খবরটি জানাজানি হলে প্রবাসীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। জানা গেছে, এসব বাংলাদেশি অবৈধভাবে মাল্টা প্রবেশ করেছেন।

এর আগে ৪৪ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানো হয়েছে মাল্টা থেকে। বিশেষ একটি বিমানে তাদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় আবারও অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর জন্য চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিচ্ছে মাল্টা সরকার। তবে অভিযোগ উঠেছে— এসব বাংলাদেশির ব্যাপারে গ্রিসে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস কোনো সহযোগিতা না করে বরং তাদের পাঠাতে আউট পাস দিয়ে মাল্টা সরকারকে সহায়তা করছে।

মাল্টায় অবস্থিত বাংলাদেশিরা রাজনৈতিক ও মানবিক আশ্রয় চেয়েছিলেন মাল্টা সরকারের কাছে। অন্যদিকে মাল্টায় কোনো দূতাবাস বা কনস্যুলেট অফিস না থাকায় গ্রিসের রাজধানী এথেন্সে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রবাসীদের পাসপোর্টসহ সব ধরনের সেবা দিয়ে থাকেন। প্রবাসী বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর বিষয়টি দূতাবাস অবগত রয়েছে।

এ ব্যাপারে মাল্টা আওয়ামী লীগের সভাপতি মশিউর রহমান বলেন, ১৫৮ বাংলাদেশি পাঠানোর খবরটি নিশ্চিত হয়েছি। আইনি প্রক্রিয়ায় তাদের রাখার জন্য আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শও করেছি। আইনের মাধ্যমে তাদের রাখা সম্ভব, তবে এথেন্স দূতাবাস কোনো সহযোগিতা না করলে তাদের মাল্টায় রাখাও অসম্ভব বলে জানিয়েছেন।

ইতোমধ্যে রাষ্ট্রদূত ও কাউন্সিলর মাল্টায় অবস্থান করছেন, যতটুকু জেনেছি আউট পাস দেওয়ার জন্য। তিনি এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে সোমবার এথেন্সে অবস্থিত গ্রিস বাংলাদেশ দূতাবাসের জরুরি বিভাগে ফোন করা হলে দূতাবাসের এক কর্মকর্তা জানান, রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ ও কাউন্সিলর মো. খালেদ মাল্টার উদ্দেশ্য রওনা দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে ফ্রান্সে অবস্থিত সামাজিক সংগঠন অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ আসোসিয়েশন (আয়েবা) মহাসচিব কাজী এনায়েত উল্লাহ বলেন, আমাদের সংগঠন দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ, ইউরোপে বাংলাদেশি প্রবাসীদের সর্বাত্মক স্বার্থ রক্ষার জন্য।

তিনি দাবি করেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং বাংলাদেশ সরকারের ওপর চাপিয়ে দেওয়া চুক্তিভিত্তিক ৯৩ হাজার অবৈধ বাংলাদেশিকে জনপ্রতি ১০ হাজার ইউরো দিয়ে বাংলাদেশে এ পর্যন্ত একজনকেও ফেরত পাঠানো হয়নি। দীর্ঘ কয়েক বছর ওই বাংলাদেশিরা রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়ে মাল্টায় অবস্থান করছেন। তার মধ্যে কিছু বাংলাদেশি জেল খেটে বের হয়েছে।

গত ১২ জানুয়ারি মাল্টা প্রশাসনের কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে স্থানীয় সময় রাত ১১টার দিকে একটি ফ্লাইটে করে দেশে ফেরত পাঠানো হয় তাদের।