চমেক-জেনারেল হাসপাতালে বিকন, রাইজ আপ ও টীম চিটাগংয়ের সুরক্ষাসামগ্রী উপহার

 নিজস্ব প্রতিবেদক |  বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৯, ২০২১ |  ৯:২৮ অপরাহ্ণ
       

করোনাকালে চিকিৎসাকেন্দ্রগুলোতে কর্মরতদের জন্য সুরক্ষা সরঞ্জামের চাহিদা অনেক গুণ বেড়েছে। কিন্তু প্রয়োজনের তুলনায় গুণগতমানের সুরক্ষা সরঞ্জাম পর্যাপ্ত পরিমাণে নেই সরকারি হাসপাতালগুলোতে। বর্তমানে করোনার প্রকোপে সরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে জরুরি সুরক্ষা সরঞ্জাম নিয়ে এগিয়ে এসেছে বিকন (বাংলাদেশ ইমারজেন্সি অ্যাকশন এগেইনস্ট কোভিড-১৯), রাইজ আপ ও টীম চিটাগং।
আজ বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিট ও আইসিইউ কর্তৃপক্ষের হাতে বিপুল সংখ্যক জরুরি সুরক্ষাসামগ্রী উপহার হিসেবে তুলে দেয়া হয়। সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. আব্দুর রবের উপস্থিতিতে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে এসব সামগ্রী গ্রহণ করেন ডা. অনুরাভা চৌধুরী এবং ডা. রাজদীব দাশ। হস্তান্তর করেন টীম চিটাগাং এর প্রতিষ্ঠাতা ইমতিয়াজ উদ্দিন জিহাদ এবং সহ-প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল্লাহ কায়সার।
এর আগে গতকাল বুধবার (১৮ আগস্ট) একই ধরনের সামগ্রী উপহার দেয়া হয় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ এর ডিরেক্টর এস এম হুমায়ুন কবির এসব সুরক্ষাসামগ্রী গ্রহণ করেন।
বিকন বাংলাদেশ একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা যারা দেশের ক্রান্তিকালে তরুণদের সাথে নিয়ে দেশকে বলিষ্ঠ হাতে ধরতে অঙ্গীকারবদ্ধ। করোনার শুরু থেকে তাদের পাশে দাঁড়াই ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে দেশের ৮০টিরও বেশি হাসপাতালে স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য সুরক্ষা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে।
চট্টগ্রামে বিকন বাংলাদেশ-এর অধিকাংশ কাজে পরিপূর্ণ সহযোগিতা দিয়ে আসছে অকুতোভয় তরুণদের অলাভজনক সংস্থা টীম চিটাগং। প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই সমাজসেবামূলক নানা কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত এ সংস্থাটি। করোনা প্রকোপের শুরু থেকেই মানবিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় তারা। প্রতিষ্ঠাতা ইমতিয়াজ উদ্দিন জিহাদ জানান, ‘চট্টগ্রামের তরুণদের দক্ষতা উন্নয়ন, দলগতভাবে সুবিধাবঞ্চিতদের জীবনমানের উন্নয়ন এবং একইসঙ্গে চট্টগ্রামকে বিশ্বমঞ্চে তুলে ধরার লক্ষ্যে ২০১৫ সালের ২৫ এপ্রিল যাত্রা শুরু করেছিলো টীম চিটাগং। বিকন বাংলাদেশ-এর কাজকে প্রসারিত করতে আমরা একত্রিত হয়েছি দেশের কল্যাণের উদ্দেশ্যে।’
করোনার কঠিন সময়ে বিকন বাংলাদেশ, রাইজ আপ ও টীম চিটাগংকে সাথে নিয়ে চট্টগ্রামে করোনা রোধে আরও উন্নয়নমূলক কাজ করতে অঙ্গীকারবদ্ধ।